Home / বাংলা টিপস / বিশ্বের সবচেয়ে দামি শাড়ির মূল্য ৩৯ লাখ ৩১ হাজার রুপি!

বিশ্বের সবচেয়ে দামি শাড়ির মূল্য ৩৯ লাখ ৩১ হাজার রুপি!

অনেক দামি শাড়ির কথাই আমরা জানি। নানা কারুকাজ, নকশার জন্য কোনো কোনোটার দাম লাখ ছাড়িয়ে যায়। কিন্তু তাই বলে একটি শাড়ির দাম ৩৯ লাখ ৩১ হাজার রুপি! হ্যাঁ, ঠিকই শুনেছেন। ঠিক এমনই এক শাড়ি তৈরি হয়েছে ভারতে যা এখন পর্যন্ত বিশ্বের সবচেয়ে দামি শাড়ি বলে পরিচিত।গিনেস  বুক  অফ  ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে এই শাড়িটিকে বিশ্বের সব থেকে দামি শাড়ি হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে।মূলত নকশা, কাপড়ের মান, হাতের কাজ- এসবের উপরে নির্ভর করেই শাড়িটির দাম নির্ধারিত হয়েছে।২০০৮ সালের ৫ জানুয়ারি দিল্লিতে বিশ্বের সবচেয়ে দামি  শাড়িটি  বিক্রি করা হয়েছিল। চেন্নাই সিল্ক সংস্থার তৈরি করা ওই শাড়িটির নাম ‘দ্য চেন্নাই সিল্ক ।দামি এই শাড়িটির ওজন আট কেজি। শাড়িটি তৈরিতে ৫৯ গ্রাম ৭০০ মিলিগ্রাম সোনা , ৩ ক্যারেটের উপরে হীরা, ১২০ মিলিগ্রাম প্ল্যাটিনাম, ৫ গ্রাম রুপা, রুবি, পান্না, ক্যাটস আই, টোপাজ, মুক্তাসহ দামি সব পাথর ও ধাতু ব্যবহার করা হয়েছে।জানা গেছে, কুয়েতের  অজ্ঞাত পরিচয় একজন ধনকুবেরের অনুরোধেই ওই সময় শাড়িটি তৈরি করা হয়। চেন্নাই সিল্কের পরিচালক শিবলিঙ্গম নিজে শাড়িটির ডিজাইন করেন।বিখ্যাত শিল্পী রবি বর্মার আঁকা ছবিও বুনন করে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে শাড়িটিতে। শাড়িটি তৈরি করতে এক বছর সময় লেগেছিল। ৩৬ জন কর্মী ৪ হাজার ৭৬০ ঘণ্টা সময় নিয়ে শাড়িটি তৈরি করেছিলেন।চেন্নাই সিল্কের কর্মকর্তারা বলেছেন, শাড়িটির ওজন আট কেজি হলেও এটি পরলে ওজন বোঝা যায় না।

অনেক দামি শাড়ির কথাই আমরা জানি। নানা কারুকাজ, নকশার জন্য কোনো কোনোটার দাম লাখ ছাড়িয়ে যায়। কিন্তু তাই বলে একটি শাড়ির দাম ৩৯ লাখ ৩১ হাজার রুপি! হ্যাঁ, ঠিকই শুনেছেন। ঠিক এমনই এক শাড়ি তৈরি হয়েছে ভারতে যা এখন পর্যন্ত বিশ্বের সবচেয়ে দামি শাড়ি বলে পরিচিত।গিনেস  বুক  অফ  ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে এই শাড়িটিকে বিশ্বের সব থেকে দামি শাড়ি হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে।মূলত নকশা, কাপড়ের মান, হাতের কাজ- এসবের উপরে নির্ভর করেই শাড়িটির দাম নির্ধারিত হয়েছে।২০০৮ সালের ৫ জানুয়ারি দিল্লিতে বিশ্বের সবচেয়ে দামি  শাড়িটি  বিক্রি করা হয়েছিল। চেন্নাই সিল্ক সংস্থার তৈরি করা ওই শাড়িটির নাম ‘দ্য চেন্নাই সিল্ক ।দামি এই শাড়িটির ওজন আট কেজি। শাড়িটি তৈরিতে ৫৯ গ্রাম ৭০০ মিলিগ্রাম সোনা , ৩ ক্যারেটের উপরে হীরা, ১২০ মিলিগ্রাম প্ল্যাটিনাম, ৫ গ্রাম রুপা, রুবি, পান্না, ক্যাটস আই, টোপাজ, মুক্তাসহ দামি সব পাথর ও ধাতু ব্যবহার করা হয়েছে।জানা গেছে, কুয়েতের  অজ্ঞাত পরিচয় একজন ধনকুবেরের অনুরোধেই ওই সময় শাড়িটি তৈরি করা হয়। চেন্নাই সিল্কের পরিচালক শিবলিঙ্গম নিজে শাড়িটির ডিজাইন করেন।বিখ্যাত শিল্পী রবি বর্মার আঁকা ছবিও বুনন করে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে শাড়িটিতে। শাড়িটি তৈরি করতে এক বছর সময় লেগেছিল। ৩৬ জন কর্মী ৪ হাজার ৭৬০ ঘণ্টা সময় নিয়ে শাড়িটি তৈরি করেছিলেন।চেন্নাই সিল্কের কর্মকর্তারা বলেছেন, শাড়িটির ওজন আট কেজি হলেও এটি পরলে ওজন বোঝা যায় না।

অনেক দামি শাড়ির কথাই আমরা জানি। নানা কারুকাজ, নকশার জন্য কোনো কোনোটার দাম লাখ ছাড়িয়ে যায়। কিন্তু তাই বলে একটি শাড়ির দাম ৩৯ লাখ ৩১ হাজার রুপি! হ্যাঁ, ঠিকই শুনেছেন। ঠিক এমনই এক শাড়ি তৈরি হয়েছে ভারতে যা এখন পর্যন্ত বিশ্বের সবচেয়ে দামি শাড়ি বলে পরিচিত।গিনেস  বুক  অফ  ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে এই শাড়িটিকে বিশ্বের সব থেকে দামি শাড়ি হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে।মূলত নকশা, কাপড়ের মান, হাতের কাজ- এসবের উপরে নির্ভর করেই শাড়িটির দাম নির্ধারিত হয়েছে।২০০৮ সালের ৫ জানুয়ারি দিল্লিতে বিশ্বের সবচেয়ে দামি  শাড়িটি  বিক্রি করা হয়েছিল। চেন্নাই সিল্ক সংস্থার তৈরি করা ওই শাড়িটির নাম ‘দ্য চেন্নাই সিল্ক ।দামি এই শাড়িটির ওজন আট কেজি। শাড়িটি তৈরিতে ৫৯ গ্রাম ৭০০ মিলিগ্রাম সোনা , ৩ ক্যারেটের উপরে হীরা, ১২০ মিলিগ্রাম প্ল্যাটিনাম, ৫ গ্রাম রুপা, রুবি, পান্না, ক্যাটস আই, টোপাজ, মুক্তাসহ দামি সব পাথর ও ধাতু ব্যবহার করা হয়েছে।জানা গেছে, কুয়েতের  অজ্ঞাত পরিচয় একজন ধনকুবেরের অনুরোধেই ওই সময় শাড়িটি তৈরি করা হয়। চেন্নাই সিল্কের পরিচালক শিবলিঙ্গম নিজে শাড়িটির ডিজাইন করেন।বিখ্যাত শিল্পী রবি বর্মার আঁকা ছবিও বুনন করে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে শাড়িটিতে। শাড়িটি তৈরি করতে এক বছর সময় লেগেছিল। ৩৬ জন কর্মী ৪ হাজার ৭৬০ ঘণ্টা সময় নিয়ে শাড়িটি তৈরি করেছিলেন।চেন্নাই সিল্কের কর্মকর্তারা বলেছেন, শাড়িটির ওজন আট কেজি হলেও এটি পরলে ওজন বোঝা যায় না।

অনেক দামি শাড়ির কথাই আমরা জানি। নানা কারুকাজ, নকশার জন্য কোনো কোনোটার দাম লাখ ছাড়িয়ে যায়। কিন্তু তাই বলে একটি শাড়ির দাম ৩৯ লাখ ৩১ হাজার রুপি! হ্যাঁ, ঠিকই শুনেছেন। ঠিক এমনই এক শাড়ি তৈরি হয়েছে ভারতে যা এখন পর্যন্ত বিশ্বের সবচেয়ে দামি শাড়ি বলে পরিচিত।গিনেস  বুক  অফ  ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে এই শাড়িটিকে বিশ্বের সব থেকে দামি শাড়ি হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে।মূলত নকশা, কাপড়ের মান, হাতের কাজ- এসবের উপরে নির্ভর করেই শাড়িটির দাম নির্ধারিত হয়েছে।২০০৮ সালের ৫ জানুয়ারি দিল্লিতে বিশ্বের সবচেয়ে দামি  শাড়িটি  বিক্রি করা হয়েছিল। চেন্নাই সিল্ক সংস্থার তৈরি করা ওই শাড়িটির নাম ‘দ্য চেন্নাই সিল্ক ।দামি এই শাড়িটির ওজন আট কেজি। শাড়িটি তৈরিতে ৫৯ গ্রাম ৭০০ মিলিগ্রাম সোনা , ৩ ক্যারেটের উপরে হীরা, ১২০ মিলিগ্রাম প্ল্যাটিনাম, ৫ গ্রাম রুপা, রুবি, পান্না, ক্যাটস আই, টোপাজ, মুক্তাসহ দামি সব পাথর ও ধাতু ব্যবহার করা হয়েছে।জানা গেছে, কুয়েতের  অজ্ঞাত পরিচয় একজন ধনকুবেরের অনুরোধেই ওই সময় শাড়িটি তৈরি করা হয়। চেন্নাই সিল্কের পরিচালক শিবলিঙ্গম নিজে শাড়িটির ডিজাইন করেন।বিখ্যাত শিল্পী রবি বর্মার আঁকা ছবিও বুনন করে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে শাড়িটিতে। শাড়িটি তৈরি করতে এক বছর সময় লেগেছিল। ৩৬ জন কর্মী ৪ হাজার ৭৬০ ঘণ্টা সময় নিয়ে শাড়িটি তৈরি করেছিলেন।চেন্নাই সিল্কের কর্মকর্তারা বলেছেন, শাড়িটির ওজন আট কেজি হলেও এটি পরলে ওজন বোঝা যায় না।

Check Also

গর্ভাবস্থায় যেসব ফল খাওয়া ঠিক নয়

গর্ভাবস্থায় পুষ্টিকর খাবার খাওয়া জরুরি। চিকিৎসকরা  এ সময় মাছ, মাংস, ডিমের পাশাপাশি খাদ্যতালিকায় ফল রাখার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *